জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে মাঠে নামার আগে যা বললেন দলপতি তামিম

টি-২০ সিরিজে হারের পর এবার বাংলাদেশের সামনে সুযোগ ওয়ানডেতে ঘুরে দাঁড়ানোর। টি-২০ সিরিজ হারলেও এই সংস্করণে প্রতিপক্ষের শক্তিমত্তা কিংবা পরিসংখ্যান বিবেচনায় বাংলাদেশ ঢের এগিয়ে। তারপরও জিম্বাবুয়ের সাম্প্রতিক ফর্ম চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছে তামিম ইকবালের দলকে।

তাইতো ওয়ানডে সিরিজে মাঠে নামার আগে সতর্ক বাংলাদেশের অধিনায়ক। তামিমের মতে, নিজেদের কন্ডিশনে জিম্বাবুয়ে বিপজ্জনক দল। সুতরাং বাংলাদেশ দল তাদের নিয়ে আলাদা করে ভাববে।

তরুণ দল নিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে মাঠে নেমেছিল টিম টাইগার। তাতে প্রথম ম্যাচেই হোচট খায় নুরুল হাসান সোহানের দল। এরপর অবশ্য দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা ফেরায় টিম তাইগা । কিন্তু শেষ ম্যাচে টাইগারদের হারিয়ে সিরিজ জিতে নেয় জিম্বাবুয়ে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে রোডেশিয়ানদের এটাই প্রথম টি-টোয়েন্টি সিরজ জয়। অবশ্য ওয়ানডেতে বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০১৩ সালের পর আর কোনো ম্যাচ জয় পায়নি জিম্বাবুয়ে। আর ম্যাচের হিসেবে তা ১৯ ওয়ানডে। তারপরও এবার স্বাগতিকদের চ্যালেঞ্জিং প্রতিপক্ষ হিসেবেই দেখছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক।

তামিম বলেন, ‘দুই দলের শক্তি বিচার করলে আমরাই এগিয়ে। তবে ক্রিকেটে নির্দিষ্ট দিনে যে ভালো করবে, জিতবে সেই দলই। টি-টোয়েন্টিতে তো জিম্বাবুয়ে আমাদের চেয়ে ভালো খেলেছে বলেই সিরিজ জিতেছে। এখানেও একই কথা। যদি ওদের হারাতে চাই, নিজেদের সেরা খেলাটাই খেলতে হবে। নিজেদের কন্ডিশনে জিম্বাবুয়ে বিপজ্জনক দল।’

জিম্বাবুয়ে সফর থেকে আগেই ছুটি নিয়ে রেখেছিলেন সাকিব আল হাসান। তাই টি-টোয়েন্টির পর এবার ওয়ানডেতেও খেলছেন না এই অলরাউন্ডার। তবে দলে ফিরেছেন মুশফিকুর রহিম। তামিমের মতে, দুই-তিনজন ছাড়া দলের বেশিরভাগ সদস্যই তরুণ। তাই এই সিরিজে তরুণদের সুযোগ দেখছেন তিনি।

তামিম বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় দুই-তিনজন বাদে আমরা খুবই তরুণ একটা দল। দু–একটা জায়গা আছে, যেগুলো হয়তো এখনো পাকাপোক্ত হয়নি। সেদিন থেকে প্রত্যেক তরুণ খেলোয়াড়েরই জায়গা পাকা করে নেওয়ার সুযোগ আছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.