বিসিবির হাতে নাঈম শেখ সহ ওপেনিং পজিশনের বিকল্পে রয়েছে যেসব ক্রিকেটার

আলমের খান: বর্তমানে বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের অবস্থা একেবারে নাজেহাল। এই ভঙ্গুর দল নিয়ে এশিয়া কাপে কতদূর যাওয়া যাবে এটি নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে সমর্থক এবং ক্রিকেট বিশ্লেষকদের মধ্যে। বিগত এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলা দলটি টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে যায় কিনা এই শঙ্কা করছে সবাই। ব্যাটিংয়ের হিসেব করলে প্রায় প্রতিটি পজিশনেই সমস্যা রয়েছে।

ওপেনিং, মিডল অর্ডার এবং ফিনিশিং এই তিন জায়গাতেই ইম্প্যাক্টফুল ক্রিকেটারের যথেষ্ট অভাব রয়েছে। তবে টাইগারদের ব্যাটিংয়ের সবচেয়ে দুর্বল স্তম্ভ নির্দ্বিধায় ওপেনিং। টি-টোয়েন্টি থেকে তামিম ইকবালের সরে দাঁড়ানোর পর থেকে এখন পর্যন্ত তার উত্তরসূরী খুঁজে বের করতে পারেননি নির্বাচকেরা। এনামুল হক বিজয় এবং মনিম শাহরিয়ার এই দুজনের মধ্যে যেকোনো একজনকে তামিমের উত্তরসূরী মনে করা হচ্ছিল। তবে এবারের জিম্বাবুয়ে সফরে সে আশাও ভেঙে চুরমার হয়ে গিয়েছে। দুজনের খারাপ ফর্ম বেশ ভুগিয়েছে টিম বাংলাদেশকে।

এক প্রকার বাধ্য হয়ে এখন সৌম্য সরকার এবং নাঈম শেখের দিকে তাকাতে হবে ম্যানেজমেন্টকে। ২০২১ বিশ্বকাপে বাজে পারফরমেন্সের প্রেক্ষিতে দুজনকে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়। পরবর্তীতে কেউই স্থায়ীভাবে দলে প্রত্যাবর্তন করতে পারেননি। বলা চলে ওয়েস্ট ইন্ডিজে ‘এ’ দলের হয়ে ভালো পারফর্ম করলে অনায়াসেই বিশ্বকাপ স্কোয়াডে ঢুকে যেতে পারে নাঈম শেখ এবং সৌম্যর সরকার।

নির্বাচকদের হাতে বিকল্প ক্রিকেটারের যথেষ্ট অভাব হওয়ায় নাঈম এবং সৌম্যর দলে ঢোকাটা সহজ হবে। এছাড়াও বিকল্প হিসেবে মাহমুদুল হাসান জয়ের দিকেও চোখ রাখতে পারে নির্বাচকেরা। মিডিল অর্ডারে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ওপেনিংয়ের গুরুদায়িত্বটাও সামলাতে পারবেন এই ক্রিকেটার। টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে জয়ের একটা পরিচিতি হয়ে গেলেও, জয় সহজাতভাবে একজন আগ্রাসি ব্যাটসম্যান। অনূর্ধ্ব ১৯ দলে জয়ের নাম ডাক ছিল আক্রমণাত্মক এক ক্রিকেটার হিসেবে।

নিজের ক্যারিয়ারের পুরোটা সময় জুড়ে মিডল অর্ডারে ব্যাট করেছেন জয়। তবে জাতীয় দলের প্রয়োজনে টেস্টে ওপেনিংয়ের দায়িত্বটুকুও বেশ ভালোভাবেই সামলেছেন। অর্থাৎ জয়কে দলে নিলে টু ডাইমেনশনাল একজন ক্রিকেটার পেয়ে যাচ্ছেন নির্বাচকেরা। ক্রিকেটার সংকটের এ সময়ে ‘এ’ দলের ক্রিকেটাররা হতে পারে নির্বাচকদের স্বস্তির কারণ। তবে সবই নির্ভর করবে জয়, নাঈম শেখ এবং সৌম্য সরকারের ‘এ’ দলের হয়ে পারফরম্যান্সের উপরই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.